ডিসি সম্মেলনের আলোচনায় ২৪৫ প্রস্তাব

  বিশেষ প্রতিনিধি    24-01-2023    15
ডিসি সম্মেলনের আলোচনায় ২৪৫ প্রস্তাব

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্মেলনের উদ্বোধন করেন

আজ মঙ্গলবার থেকে শুরু হয়েছে তিন দিনব্যাপী জেলা প্রশাসক সম্মেলন (ডিসি সম্মেলন)। এবার আলোচনার জন্য ২৪৫টি প্রস্তাব এসেছে ডিসিদের পক্ষ থেকে। সম্মেলনের তিন দিনে ২৬টি অধিবেশনে এসব প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা করা হবে। আর তার ভিত্তিতেই নেওয়া হবে প্রয়োজনীয় সিদ্ধান্ত।

জানা গেছে, এবার কারাগারে বন্দীদের ভিডিও কলের মাধ্যমে আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে কথা বলার ব্যবস্থা করার প্রস্তাব দিয়েছেন মৌলভীবাজারের ডিসি। একই সঙ্গে কারাগারের সাক্ষাতকক্ষে স্বচ্ছ গ্লাসের নিরাপত্তাবেষ্টনীর মধ্যে ইন্টারকমের মাধ্যমে কথা বলার ব্যবস্থা নেওয়ারও প্রস্তাব দিয়েছেন জেলা ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে দায়িত্ব পালন করা ডিসিরা। এর যুক্তিতে বলা হয়েছে, ভিডিও কলের মাধ্যমে কথা বলার সুযোগ পেলে কারাগারে বন্দীদের আত্মীয়স্বজনের যাতায়াত কমবে।

এ ছাড়া দণ্ডবিধির ১৭০, ১৭১ ও ৪১৯ ধারা ভ্রাম্যমাণ আদালত আইনের তফসিলভুক্ত করার প্রস্তাব দিয়েছেন সাতক্ষীরার ডিসি। এ প্রস্তাবের যুক্তি হিসেবে বলা হয়েছে, বিশেষ কোনো ব্যক্তি পদে অধিষ্ঠিত না হয়েও নিজেকে সেই পদের পরিচয় এবং বিভিন্ন বাহিনীর পোশাক ব্যবহার করে প্রতারণা করেন, যা দণ্ডবিধির ওই সব ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ। এ প্রস্তাব গ্রহণ করা হলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এসব অপরাধে সাজা দিতে পারবেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা।

অন্যদিকে সীমান্তের আট কিলোমিটারের বাইরে বিজিবি সদস্যের মাধ্যমে গুলির ঘটনা ঘটলে নির্বাহী তদন্তের মাধ্যমে যৌক্তিকতা যাচাই করার প্রস্তাব দিয়েছেন খাগড়াছড়ির ডিসি। উপজেলা, জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে গণিত ও বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড আয়োজনের প্রস্তাব দিয়েছেন লক্ষ্মীপুরের ডিসি। আর জামালপুরের ডিসি গণিত ও বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড থেকে লব্ধ জ্ঞান আরও গবেষণার মাধ্যমে বাস্তবভিত্তিক প্রয়োগের উদ্যোগ নিতে বলেছেন। পর্যায়ক্রমে সব উপজেলায় পাবলিক লাইব্রেরি নির্মাণ করতে বলেছেন ভোলার ডিসি।

আজ মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্মেলনের উদ্বোধন করেন। সকাল ১০টায় তিনি এ সম্মেলনে যোগ দেন। প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য বাংলাদেশ টেলিভিশনসহ (বিটিভি) বিভিন্ন গণমাধ্যম সরাসরি সম্প্রচার করে।

এরপর করবী হলে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মুক্ত আলোচনায় অংশ নেবেন ডিসিরা। সম্মেলন থেকে ডিসিদের দিকনির্দেশনা দেওয়া হবে। এ সময় ডিসিরা সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরবেন। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অনুষ্ঠানের পরে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে মন্ত্রণালয় ও বিভাগভিত্তিক কার্য-অধিবেশন হবে।

সম্মেলনের দ্বিতীয় দিন আগামীকাল বুধবার জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী ও প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর সঙ্গে এবং তৃতীয় দিন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে ডিসিরা সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। এতে উপস্থিত থাকবেন বিভাগীয় কমিশনারও।

ডিসিরা মাঠপর্যায়ে সরকারের প্রতিনিধিত্ব করেন। তাই ডিসি সম্মেলন ও ডিসিদের প্রস্তাব গুরুত্ব দিয়ে দেখে সরকার। সম্মেলনের আগে ডিসিরা মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে বিভিন্ন প্রস্তাব পাঠান। এরপর মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ডিসিদের কাছ থেকে আসা প্রস্তাবগুলো সমন্বয় করে আলোচনার উদ্যোগ নেয়।

1

জাতীয়-এর আরও খবর