হত্যা মামলায় কক্সবাজারে সন্তান ও পিতা-মাতাকে যাবজ্জীবন

  বিশেষ প্রতিনিধি    31-01-2023    228
হত্যা মামলায় কক্সবাজারে সন্তান ও পিতা-মাতাকে যাবজ্জীবন

একটি হত্যা মামলায় সন্তান ও পিতা-মাতা সহ তিনজনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে। একইসাথে দন্ডিত আসামীর মধ্যে সন্তানকে ৫০ হাজার টাকা এবং অপর ২ আসামী পিতা-মাতার প্রত্যেককে ৩০ হাজার টাকা করে অর্থদন্ড, অর্থদন্ড অনাদায়ে আরো এক বছর করে বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩১ জানুয়ারি) কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ-প্রথম আদালতের ভারপ্রাপ্ত বিজ্ঞ বিচারক নিশাত সুলতানা এ রায় ঘোষণা করেন।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত-১ এর বেঞ্চ সহকারী দেলোয়ার হোসাইন এ তথ্য জানিয়েছেন।

দন্ডিতরা হলো : মোঃ মঞ্জুর প্রকাশ কল মঞ্জুর এর পুত্র মোঃ ফোরকান, মোঃ মকবুল এর পুত্র মোঃ মঞ্জুর প্রকাশ কল মঞ্জুর, মোঃ মঞ্জুর প্রকাশ কল মঞ্জুর এর স্ত্রী আমিনা খাতুন। তাদের প্রত্যেকের বাড়ি টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের উত্তর শীলখালীর বাইল্যারছড়া গ্রামে। এরমধ্যে, আসামী মোঃ মঞ্জুর প্রকাশ কল মঞ্জুর পলাতক রয়েছে। বাকী ২ জন আসামী রায় ঘোষণার সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

রাষ্ট্র পক্ষে একই আদালতের এডিশনাল পিপি অ্যাডভোকেট মোজাফফর আহমদ হেলালী, আসামী পক্ষে অ্যাডভোকেট সলিমুল মোস্তফা ও পলাতক আসামীর পক্ষে স্টেট ডিফেন্স আইনজীবী অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম-৪ মামলাটি পরিচালনা করেন।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণ : ২০১৯ সালের ২৭ আগস্ট সন্ধ্যা কক্সবাজারের টেকনাফের বাহারছরা ইউনিয়নের উত্তর শীলখালীর বাইল্যারছড়া গ্রামের খুরশিদা বেগমের পুত্র আবদুল করিমকে আসামীরা পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মারধর করলে আবদুল করিম গুরতর আহত হয়। আবদুল করিমকে মুমূর্ষু অবস্থায় প্রথমে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে ও পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে পরদিন অর্থাৎ ২০১৯ সালের ২৮ আগস্ট আবদুল করিম চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

এ ঘটনায় নিহত আবদুল করিম এর মা খুরশিদা বেগম বাদী হয়ে টেকনাফ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। যার টেকনাফ থানা মামলা নম্বর : ৭০/২০১৯ ইংরেজি, জিআর মামলা নম্বর : ৭৪৯/২০১৯ (টেকনাফ) এবং এসটি মামলা নম্বর ২৪৯/২০২১ ইংরেজি।

বিচার ও রায় : মামলাটি বিচারের জন্য ২০২২ সালের ৪ অক্টোবর চার্জ (অভিযোগ) গঠন করা হয়। মামলায় ১৪ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ, আসামী পক্ষে সাক্ষীদের জেরা, আলামত প্রদর্শন, সুরতহাল প্রতিবেদন ও ময়নাতদন্ত রিপোর্ট যাচাই, আসামীদের আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ প্রদান, যুক্তিতর্ক সহ মামলার সকল বিচারিক প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে মামলাটি মঙ্গলবার রায় ঘোষণার জন্য রাখা হয়।

রায়ের দিন কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের ভারপ্রাপ্ত বিজ্ঞ বিচারক নিশাত সুলতানা ১৮৬০ সালের ফৌজদারী দন্ড বিধির ৩০২/৩৪ ধারায় দোষী সাব্যস্থ করে আসামী মোঃ ফোরকান, তার পিতা মোঃ মঞ্জুর প্রকাশ কল মঞ্জুর, মাতা আমিনা খাতুনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড প্রদান করেন।

একইসাথে পলাতক আসামী মোঃ ফোরকানকে ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ড, তার পিতা মোঃ মঞ্জুর প্রকাশ কল মঞ্জুর, মাতা আমিনা খাতুনকে ৩০ হাজার টাকা করে অর্থদন্ড প্রদান করেন। অর্থদন্ড অনাদায়ে প্রত্যেককে আরো এক বছর করে বিনাশ্রম কারাদন্ডের রায় ঘোষণা করেন।

সারাদেশ-এর আরও খবর